Home » অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং » প্রফেশনাল লাইফ » কিওয়ার্ড কম্পিটিশান অ্যানালাইসিস (৩য় পর্ব)

কিওয়ার্ড কম্পিটিশান অ্যানালাইসিস (৩য় পর্ব)

সবাইকে স্বাগতম কিওয়ার্ড কম্পিটিশান অ্যানালাইসিস পর্বে। আগের দুটি পর্ব যারা এখনো পড়েন নি তারা এখানি পড়ে নিন, অন্যথায় ছন্দ পাবেন না।

নিস আমাজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং (রিয়েল লাইফ প্রজেক্ট)
নিস কিওয়ার্ড রিসার্চ (২য় পর্ব)

keyword research

প্রথমেই বলে রাখা ভাল,  কিওয়ার্ড কম্পিটিশান অ্যানালাইসিস একটি জটিল প্রক্রিয়া। পুরো অ্যানালাইসিস প্রক্রিয়াটি জানতে হলে আপনাকে এসইও-র প্রায় প্রতিটা ফেক্টরের কোর লেভেল (সর্বোচ্চ পর্যায়) পর্যন্ত জানতে হবে। যেমন-

  • পেজ রেংক কি? কিভাবে নির্ধারন হয়?
  • ডোমিন এইজ (Age) কি? EMD কি?
  • ডোমিন অথরিটি কি? ডোমিন অথ্রিটি ও পেজ/পোস্ট অথরিটির পার্থক্য কি?
  • টাইটেল ও ডেস্ক্রিপশন ট্যাগ কি? এই ট্যাগ কিভাবে এসইও তে প্রভাব ফেলে?
  • ব্যাক লিংক কি? ব্যাক লিং কিভাবে পাওয়া যায়? Do-follow, No-follow ব্যাংক লিংঙ্ক কি?
  • ইন্টারনাল লিংক, এক্সস্টার্নাল লিংঙ্ক কি? কিভাবে কাজ করে?
  • এলেক্সা রেংক কি? এলেক্সা রেংক কি? এলেক্সা রেংক কিভাবে কাজ করে?

ইত্যাদি অনেক বিষয় আপনাকে জানতে ও শিখতে হবে। আমি ধরে নিব আপনি একজন নতুন মার্কেটার, এই অবস্থায় আমি যদি এই বিষয় গুলো নিয়ে আলোচনা করি তাতে অনেকেই ঝামেলা পাকিয়ে ফেলবে। তাই আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, সিরিজের এই অংশটা একটা সফটওয়্যারের ব্যবহার করে দেখাব কিভাবে কম্পিটিশান অ্যানালাইসিস করতে হয়। যাতে আপনারা খুব সহজেই কাজ শুরু করতে পারেন।

তবে বলে রাখা ভাল, আপনি যদি একজন প্রফেশনাল অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার হতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই এসইও (সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন) সম্পর্কে অনেক ভাল ধারনা রাখতে হবে।

আর যদি আপনি এসইও সম্পর্কে মোটামুটি জানেন তাহলে ম্যেনুয়াল পদ্ধতিতে কিওয়ার্ড অ্যানালাইসিস শিখতে নিচের কিছু সাইটগুলো ফলো করতে পারেন। এই সব সাইট থেকেও আপনি কিওয়ার্ড অ্যানালাইসিস খুব ভাল ভাবে শিখতে পারবেন।

স্টার (*) মার্কের সাইট গুলো হাইলি রিকোমেন্ড করছি।

এছাড়া এসইও শিখার জন্য নিম্নের সাইট গুলো ফলো করতে পারেন-

এসইওর নতুন নতুন বিষয় গুলো জানতে নিচের ব্লগ গুলো পড়তে পারেন। বলে রাখা ভাল, এসইও একটি চলমান প্রকৃয়া, তাই নিত্য নতুন এসইও-র সাথে নিজেকে আপডেট রাখতে হয়।

তো শুরু করা যাক কিওয়ার্ড অ্যানালাইসিস; আমরা এই অংশে যে টুলটি ব্যবহার করব তার নাম Keyword Revealer. এই টুলটি চাইলে আপনারা ফ্রিতে অথবা কিনে ব্যবহার করতে পারেন। ফ্রিতে আপনি দৈনিক ৩ বার কিওয়ার্ড রিসার্চ ও ৭ টি কিওয়ার্ডের কম্পিটিশন চেক করতে পারবেন। মাসিক ৯.৯৭ ডলারের (প্রায় ৮০০ টাকা) একটা প্যেকেজ আছে, যাতে আপনি দৈনিক ২৫ বার কিওয়ার্ড রিসার্চ ও ৫০ টি কিওয়ার্ডের কম্পিটিশন চেক করতে পারবেন।

একটি ভাল কিওয়ার্ড পাওয়ার জন্য আমাদেরক অনেক সময় ও পরিশ্রম বিনিয়োগ করতে হয়। সুতরাং প্রথম অবস্থায় কিছু ভাল কিওয়ার্ড পেতে আপনাকে বার বার সার্চ করতে হবে। তাই আমি আপনাদের বলব ১০ ডলারের বিনিময়ে এর পেইড ভার্সনটি কিনে নিন। তাহলে স্মুথলি কিওয়ার্ড রিসার্চ ও অ্যানালাইসিসের কাজ করতে পারবেন।

Keyword Revealer এর প্যেকেজ কিনতে আপনারা পেওনিয়রের মাস্টার কার্ড অথবা নেটেলারের ভার্চুয়াল কার্ড ব্যবহার করুন। এই কার্ড দিয়ে শুধু মাত্র Keyword Revealer ই না, অনলাইনে যেকোন কিছু কেনাকাটা করতে পারবেন।

Keyword Revealer দিয়ে কিওয়ার্ড রিসার্চ ও অ্যানালাইসিস

কিওয়ার্ড রিসার্চ ও অ্যানালাইসিস করার যত গুলো সফটওয়্যার বা টুল আছে তার ভিতর অন্যতম হল Keyword Revealer. এছাড়া, বাজারে যত গুলো কিওয়ার্ড রিসার্চ ও অ্যানালাইসিসের টুল বা সফটওয়্যার আছে তার ভিতর সবচেয়ে সস্তা ও শক্তিশালি টুল এটি। এতে রয়েছে অসাধারন কিছু ফিচার, যা দিয়ে আপনি খুব সহজেই কিওয়ার্ড রিসার্চ ও অ্যানালাইসিসের কাজ করতে পারবেন। এই সফটওয়্যারটির মাধ্যমে আপনি যে সব তথ্য পাবেন-

  • লোকাল ও গ্লোবাল সার্চ ভলিউম
  • রিলেটেড কিওয়ার্ড আইডিয়া
  • এভারেজ সি.পি.স (কস্ট পার ক্লিক)
  • এডভার্টাইজিং থেকে আনুমানিক আয়।
  • কিওয়ার্ড কম্পিটিশন (Evaluate) চেকিং
  • কিওয়ার্ড রিলেটেড .com, .net এবং .org ডোমিন চেকিং
  • কিওয়ার্ড ট্রেন্ড চেকিং

Keyword Revealer

এছাড়া, কিওয়ার্ডকে ওয়ার্ড নাম্বার অনুযায়ি ফিল্টার করা যাবে, যেমন- আপনি যদি চান শুধু মাত্র ৩ থেক ৭ শব্দের কিওয়ার্ডগুলো আপনাকে সাজেশনে দেখাক সেটাকে আপনি ফিল্টার করে দেখতে পারেন।

এমনকি, কিওয়ার্ডকে সার্চ ভলিউম অনুযায়ি ফিল্টার করতে পারবেন অর্থ্যাৎ আপনি চাইলে মিনিমাম ৩০০ (যে কোন এমাউন্ট) এবং মেক্সিমাম ২০,০০০ (যে কোন এমাউন্ট) এর কিওয়ার্ডগুলো আপনাকে সাজেশনে দেখাক সেভাবে ফিল্টার করতে পারবেন। 🙂

এই সফটওয়্যারটির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও মজার অংশ হল এর Keyword Difficulty চেকার, যার মাধ্যমে আপনি ঐ নিদৃষ্ট কিওয়ার্ডের এসইও কম্পিটিশন দেখতে পারবেন। আর খুব সহজেই সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন যে ঐ কিওয়ার্ডে আপনাকে সার্চ ইঞ্জিনে রেংক করাতে পারবেন কি পারবেন না। তো শুরু করা যাক…

ধাপ-১: প্রথমেই keywordrevealer.com সাইটে যান, যাদের সামর্থ আছে তারা এই সফটওয়্যারটি কিনে ব্যবহার করতে পারেন, আর যাদের কেনার সামর্থ্য নেই তারা এর ফ্রি ভার্সন ব্যবহার করতে পারেন। যেহেতু প্রথম অবস্থায় বার বার সার্চ করে দেখতে হবে ভাল কিওয়ার্ড পাবার আশায়, তাই আমি বলব অন্তত্ প্রথম একমাসের জন্য হলেও এদের ৯.৯৭ ডলারের প্যেকেজটি কিনে নিন।

ধাপ-২: Sign Up বাটনে ক্লিক করে আপনার ইনফরমেশন দিয়ে ফর্মটি ফিল-আপ করে Create my account বাটনে ক্লিক করে আপনার রেজিস্ট্রেশানটি কনফার্ম করুন।

ধাপ-৩: রেজিস্ট্রেশানটি শেষে লগ-ইন করুন। এবার উপরের ম্যেনু বারে দেখুন Keyword Tool নামে একটি ম্যেনু আছে। ঐ খানে ক্লিক করুন, দেখুন একটা নতুন পেজ ওপেন হয়েছে। এবার Type keyword to begin … ঘরে আপনি আপনার কাংঙ্খিত নিস বাসান, লোকেশান ঘরে All Locations সিলেক্ট করে Submit বাটনে ক্লিক করুন।

Keyword research

আমার এই সিরিজের জন্য আমি একটি নিসটি সিলেক্ট করেছি, আর তা হল- “Vacuum Cleaner”। এই নিসটি যে কারনে আমি সিলেক্ট করেছি-

  • এটি মূলত উন্নত বিশ্বের (বায়িং কেপাসিটি যাদের বেশি) লোকেরা ব্যবহার করে।
  • দৈনন্দিন কাজে Vacuum Cleaner অপরিহার্য্য যন্ত্র।
  • Vacuum Cleaner এর অল্টারনেটিভ আসলে কিছুই নেই, বরং দিনকে দিন এর ব্যবহার বহুমাত্রিক হচ্ছে।
  • বাজারে বহু প্রকারের Vacuum পাওয়া যায়, যা নিয়ে আমি অনেক বেশি লিখতে পারব।
  • যদিও ব্যাক্তিগত ভাবে এই যন্ত্রটি ব্যবহার করার অভিজ্ঞতা নেই, তারপরেও যেহেতু এটি একটি সাধারন ইলেক্ট্রনিক যন্ত্রের মতই তাই সামান্য কিছু পড়া-শুনা
  • করলে এর উপর লেখার দক্ষতা অর্জন করা সম্ভব।
  • Vacuum Cleaner ক্রয় করতে মোটা অংঙ্কের টাকা খরচ করতে হবে না। তাই সাধারন মানুষেরও এটি ক্রয় করার ক্ষমতা রাখে।

যেভাবে আমি Keyword Revealer দিয়ে কিওয়ার্ড অ্যানালাইসিস করেছি:

প্রথমে আমি keywordrevealer.com সাইটে লগ-ইন করি। এরপর Type keyword to begin … ঘরে Vacuum Cleaner নিস কিওয়ার্ডটি দিয়ে Submit বাটনে ক্লিক করি, keyword revealer মূহুর্তের ভিতর আমাকে ৬৭৪ টি কিওয়ার্ড সাজেস্ট করে।

যেহেতু শুধু মাত্র Vacuum Cleaner দিয়ে সার্চ করার keyword revealer আমাকে অনেক আজে-বাজে কিওয়ার্ডও রিলেটেড সার্চ হিসাবে আমাকে সাজেস্ট করেছে তাই আমি এই কিওয়ার্ড গুলোকে আমার মতন করে ফিল্টার করে নিব।

ফিল্টারিং (১): Keyword Filter ঘরে আমি Vacuum কথাটা বসাই, যার মানে হল ৬৭৪ টি কিওয়ার্ডের ভিতর যে সব কিওয়ার্ডে Vacuum শব্দটা আছে আমাকে শুধু সেই সব কিওয়ার্ডই সাজেশন লিস্টে দেখাবে। আর বাকি গুলো বাদ হয়ে যাবে। এর ফলে আমার কিওয়ার্ডের সংখ্যা ৬৭৪ থেকে কমে ৬৪৮ এ নেমে আসল। আর তাতে আমি আমার কাংঙ্খিত কিওয়ার্ড গুলো পেয়ে যাই।

ফিল্টারিং (২): Average Monthly Searches এ দুটি ঘর আছে। প্রথম ঘরটির নাম min যার মানে হল Minimum বা সর্বোনিম্ন, দ্বিতীয় ঘরটির নাম max যার মানে হল Maximum বা সর্বোচ্চ। অর্থ্যাৎ Average Monthly Searches এর মাধ্যমে আপনি ঠিক করে দিতে পারবেন আপনি সর্বোনিম্ন কত ভলিউমের কিওয়ার্ড দেখতে চান, আর সর্বোচ্চ কত বেশি কিওয়ার্ডের সাজেশন দেখতে চান।

এখানের min ঘরে আমি ৫০০ দেই আর max ঘরটি খালি রাখি। আর এর মাধ্যমে আমি ফিল্টার করতে চাই আমাকে যেন এমন কিওয়ার্ডকে সাজেস্ট করে যার মাসিক মিনিমাম সার্চ ভলিউম আছে ৫০০।

** বলে রাখা ভাল Average Monthly Searches মানে হল গুগলের সার্চ ইঞ্জিনে ঐ কিওয়ার্ডটির মান্থলি কত বার সার্চ হয় তার এভারেজ। যেমন- “vacuum cleaner reviews” কিওয়ার্ডটিতে গুগলে মাসে সারা বিশ্ব থেকে কতবার সার্চ হয় তার গড় সংখ্যা। **

ফিল্টারিং (৩): Number Of Words এতেও রয়েছে দুইটি ঘর একটি min অন্যটি max; এখানে Number Of Words ফিল্টারের কাজ হল আপনি সর্বোনিম্ন এবং সবর্োচ্চ কত শ্বব্দের কিওয়ার্ড রিলেটেড সার্চ রেজাল্টে দেখতে চান। আমি এখানে min এর ঘরে ৩ এবং max এর ঘরে ৭ দিয়ে ফিল্টার করি।

কেন আমি মিনিমাম এর ঘরে ৩ দিলাম এবং মেক্সিমাম এর ঘরে ৭ দিলাম? কারন হল- ১ শব্দ ও ২ শব্দের কিওয়ার্ডগুলোর সার্চ ভলিউম ভাল হলেও এদের কম্পিটিশান অনেক বেশি হয়। সাধারনত ১ শব্দ ও ২ শব্দের কিওয়ার্ডগুলোতে Wikipedia, About.com, Business Insider‎, Amazon.com এর মতন বড় বড় ওয়েবসাইট সার্চ ইঞ্জিনের রেজাল্ট পেজে চলে আসে। এর এরা অনেক শক্তিশালি হওয়ায় এদের সাথে কম্পিটিশনে পেরে উঠা প্রায় অসম্ভব। তাই আমি ১ শব্দ ও ২ শব্দের কিওয়ার্ডগুলোকে সব সময় এড়িয়ে চলি।

Keywprd Filter

আর যে দুটো ফিল্টার করার অপশন আছে তা আসলে আমাদের আমাজন অ্যাফিলিয়েশনে খুব একটা কাজে দিবে না। এই ফিল্টার তারাই ব্যবহার করে যারা নাকি গুগল অ্যাডসেন্স এ কাজ করে। তাই এই দুটি ফিল্টার আমরা ব্যবহার করব না।

উপরের ৩টি উপায়ে ফিল্টার করার ফলে আমার কিওয়ার্ড লিস্ট ৬৭৪ থেকে নেমে ১৬০ এ চলে আসছে। এখন এই ১৬০ টি কিওয়ার্ড থেকে আমাকে বাছাই করতে হবে আমার আসল কিওয়ার্ড, যার উপর ভিক্তি করে আমি আমার সাইট ডেভেলপ করব।

পুরো প্রকৃয়াটি ভিডিও টিউটরিয়ালে দেখুন-

ফাইনাল কিওয়ার্ড বাছাই:

ফিল্টারিং করার ফলে এর লিস্ট ছোট হয়ে যাওয়ায় আমার জন্য আসল কিওয়ার্ড খুঁজে বের করা এখন অনেক সহজ হয়ে যায়। এবার আমি এখানের থেকে ম্যেনুয়ালি এক এক করে বায়িং কিওয়ার্ড গুলোকে বাছাই করি, এবং এসব বায়িং কিওয়ার্ডগুলোর Keyword Difficulty চেক করে দেখি। যে কিওয়ার্ডের Keyword Difficulty রেঞ্জ ৪০ এর নিচে আছে আমি সেই সব কিওয়ার্ডকে সেভ করে নেই। কিওয়ার্ড Keyword Difficulty চেক করার সময় কিওয়ার্ডের ট্রন্ডটাও দেখে নেই কারন যদি কোন কিওয়ার্ডের ট্রেন্ড পূর্বের তুলনায় বর্তমানে অনেক খারাপ থাকে তাহলে আমি সেই কিওয়ার্ড বাদ দিয়ে দেই।

এভাবে এক এক করে Keyword Difficulty চেক করি এবং কম্পিটিশান লেভেল ৪০ এর নিচে থাকলে সেটা সেভ করে ফেলি। এবার আমার সব সেভ করা কিওয়ার্ড লিস্ট দেখতে Saved Keywords ট্যাব যাই এবং সেখান থেকে সবগুলো কিওয়ার্ড ডাউনলোড করে নেই। আর এই ডাউনলোড করা কিওয়ার্ডই হল আমার আসল কিওয়ার্ড যার উপর ভিক্তি করে আমি আমার ব্লগ সাজাব। এই ছিল আজকের পর্বে, নেক্সট পর্বে আমরা আমাদের ব্লগ সেটাপ করার জন্য ডোমিন এবং হোস্টিং বাছাই করে সেটাপ করব।

53 thoughts on “কিওয়ার্ড কম্পিটিশান অ্যানালাইসিস (৩য় পর্ব)

  1. ভাইয়া পড়ার আগেই ধন্যবাদ…পড়ার পর আবার কমেন্ট করব

    1. ইনশাআল্লাহ আমি চেষ্টা করব যত দ্রুত সম্ভব পরবর্তি পোস্ট গুলো দিতে। মতামতের জন্য ধন্যবাদ। 🙂

  2. অনেক ভাল লাগল । বিশেস করে কী ওয়ার্ড ডিফিকাল্টি চেকিং টা। উপক্রিত হলাম। ধান্যবাদ মাসুদ ভাই।

    1. আসলেই Keyword Revealer একটি অসাধারন টুল, খুব সহজেই এর মাধ্যমে ডিফিকাল্টি চেক করা যায়। মতামতের জন্য ধন্যবাদ 🙂

    1. ধন্যবাদ মতামতের জন্য, যেহেতু এটি সিরিজ টিউটরিয়াল তাই এখানে সব কিছুই থাকবে। শুধু অপেক্ষা করুন 🙂

  3. ভাইয়া অনেক সুন্দর হইছে । বাংলাদেশ এর কিছু কোচিং আছে যারা টাকা দিয়েও এই ভাবে শিখায় না । আমি আমার এক্সপেরিএঞ্চে থেকে বলছি । আরও সুন্দর সুন্দর লেখা চায় আপনার কাছে ।

  4. দুর্দান্ত হয়েছে ভাই। পরের পর্বের অপেক্ষায় ঘড়ি জাপটে ধরে বসে আছি মাসুদ ভাই।

    1. 🙂 অপেক্ষায় থাকুন, খুব তারাতারিই সিরিজের নতুন লেখা প্রকাশ করা হবে। মতামতের জন্য ধন্যবাদ

  5. ভাইয়া আপনার আই চমৎকার লেখার জন্য আপনাকে শুধু ধন্যবাদ দিয়ে ছোট করতে চাইনা/ শুধু বলবো আমরা ভাগ্যবান আপনার এই মুল্যবান লেখাগুলো থেকে কিসছু শেখার সুযোগ পাবার জন্য। আমার একটা প্রশ্ন ছিল আপনার কাছে। আমি গুগল এডসেন্স এর ইএ ব্রড সাইট নিয়ে কাজ করতে চাছি সেটার জেকন একটা নিস সাইট দিয়ে কি আমি এফিলিয়েট মারকেতিং করতে পারবো না। নাকি আমাকে শুধু একটনিস সাইট দিয়েই এফিলিয়েট মারকেতিং করতে হবে?

    1. আপনারা কিছু শিখতে পারছেন শুনে আমি অনুপ্রেরনা পাচ্ছি, আর দুঃখিত যে আমি আপনার প্রশ্নটি বুঝতে পারি নাই। দয়াকরে গোছিয়ে প্রশ্ন করুন, আমি অবশ্যই চেষ্টা করব আপনার প্রশ্নের উত্তর দিতে। মতামতের জন্য ধন্যবাদ 🙂

      1. আমার একটা প্রশ্ন ছিল আপনার কাছে। আমি গুগল এডসেন্স ব্রড সাইট নিয়ে কাজ করি। এই ব্রড সাইট এর যেকোনো একটা নিস সাইট বা টপিকস দিয়ে কি আমি এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারবো? নাকি আমাকে শুধু আলাদা একটি নিস ওয়েবসাইট খুলতে হবে এবং তা দিয়েই এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে হবে?

  6. খহুব সুন্দর একটি টুল এর ব্যবহার দেখিয়েছেন। আর এই টুলটি সম্পর্কে আজই জানলাম। ধন্যবাদ আপনাকে শেয়ার করার জন্য।

  7. It’s very informative and very well explained.I think its the best easy way to learn – how to keyword research.
    Waiting for the upcoming series …Thanks for sharing with us.

  8. Vi affiliate marketing somporka janar eassa onen din thaka bt kotha suru korbo bujhta parcilam na,apnar ai site thaka onek kisu sekhta parsi,natun lakhar prothikai roilam,thnk’s

    1. আমার সিরিজের প্রতিটি ফেক্টর ফলো করুন আশা করি আপনিও সফল হতে পারবেন। মতামতের জন্য ধন্যবাদ 🙂

    1. এই সিরিজটি আপনাদের ভাল লাগছে শুনে অনেক অনুপ্রেরনা পাচ্ছি, সাথেই থাকেন নতুন নতুন অনেক বিষয় আমি শেয়ার করার চেষ্টা করব। মতামতের জন্য ধন্যবাদ 🙂

  9. আমার একটা প্রশ্ন ছিল আপনার কাছে। আমি গুগল এডসেন্স ব্রড সাইট নিয়ে কাজ করি। এই ব্রড সাইট এর যেকোনো একটা নিস সাইট বা টপিকস দিয়ে কি আমি এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে পারবো? নাকি আমাকে শুধু আলাদা একটি নিস ওয়েবসাইট খুলতে হবে এবং তা দিয়েই এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে হবে?

    1. যেহেতু আমরা এখানে নিস নিয়ে কাজ করছি তাই আমি বলব আলাদা সাইট নিয়েই কাজ করা ভাল হবে। মতামতের জন্য ধন্যবাদ 🙂

  10. মাসুদ ভাই, দারুণ হয়েছে লেখাটা। আমার একটা বিষয় জানা দরকার। Keyword Revealer এর মান্থলি প্ল্যান নিয়েছি এবং কী ওয়ার্ড রিসার্চ ও শেষ। আমার সাইট হবে আমাজন এর ১০ টা প্রোডাক্ট নিয়ে ( একই নিশ এর) , আমি ৫০০+ সার্চ এবং৩-৭ ওয়ার্ড এর ৭০ টা কী ওয়ার্ড পেয়েছি যেইগুলা আমার নিশ এর সাথে য়ায়।সেখান থেকেও ৩০ টা বাদ দিয়েছি। এই ৪০ টা কী ওয়ার্ড দিয়ে কি সাইট অপটিমাইজ করা ঠিক হবে ? কিভাবে ইউজ করব এদের কে ? ১০ টা বড় প্রোডাক্ট ডিসক্রাইপ্সন পেজ হবে এবং ব্লগ পেজ এ অনেক আর্টিকেল নিয়মিত পাবলিশ হবে। সাইট এর মেইন ( হোম পেজ) কী ওয়ার্ড কয়তা দিব? বাকি গুলো কিভাবে ব্যাবহার করব ? একটু পরামর্শ চাচ্ছি এই ৪০ টার LSI ও বানাচ্ছি …

  11. Thanks for the awesome post ! I haven’t selected my niche yet but I will soon select one and ask for your suggestions. And I am hoping for your help. I want to buy monthly package from keyword revealer. I have payoneer master card but its totally empty and I don’t have neteller. How can I buy that package ? Your help will be appreciated vaia . Thanks again.

    1. অনেকেই পেওনিয়ারের ডলার বিক্রি করে, এমন কাউকে খুজে বের করে তার কাছ থেকে টাকার বিনিময়ে ডলার কিনে নিতে পারেন। মতামতের জন্য ধন্যবাদ 🙂

  12. Vai osomvob valo likhecen. bole bojha jabe na.

    Vai ami kaz start kore dici, aj theke 3 diner moddhe keyword research & competitor analysis sesh korbo inshaallah. Then

    Vai dowa korben, jeno valo kicu korte pari, r problem hole apnake knock korbo.

    next post kobe pacci?

    Thanks

  13. এক কথায় অসাধারন ! অনেক তালগোল ছিল এখন ক্লিয়ার হইছে। ধন্যবাদ মাসুদ ভাই

  14. টিউটোরিয়াল সিরিজ টি খুব ভালো লাগলো সেই পুরনো দিনের ব্লগিং স্বাদ পাচ্ছি । সিরিজ এর সাথে সাথে একটা নিউ প্রোজেক্ট শুরু করেদিলাম । সাথে আছি মাসুদ ভাই চালিয়ে যান ।

  15. অনেক সুন্দর লিখেছেন। আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

  16. Last post was published in December 2014 and the blog sidebar showing its as a recent post!!!!!! how active we are in our journey – just amazing!

  17. নতুন কিছু জিনিষ জানতে পেরেছি ধন্যবাদ ভাইয়া, আশা করি কন্টিনিউ লিখা লিখি করবেন

  18. ধন্যবাদ অসংখ্য ধন্যবাদ।
    সত্যি অসাধারণ! এধরনের পুর্ণাঙ্গ লেখা সচরাচর (বিশেষ করে বাংলায়) পাওয়া যায় না। একেবারে হাত ধরে দেখিয়ে দিলেন। যে কোন আগ্রহী পাঠক এই লেখা পড়ে উপকৃত হবে নি:সন্দেহে। আমি সঠিক সময়েই আপনার লেখাটি হাতে পেলাম। এধরনের প্রজেক্টভিত্তিক লেখা আরো বেশি বেশি আশা করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *